বিয়ের পর নারীরা বাবা-মার কথা মানবে না স্বামীর

বিয়ের আগে মেয়ের জন্য বাবা মায়ের কথা মেনে চলা অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ। বিয়ের পরও মানা গুরুত্বপূর্ণ তবে বিয়ের পর সে একটা নতুন পরিবারে যায়। এ দু’পক্ষের মধ্যে যদি কোনো বিষয়ে মতভেদ হয় তবে দেখতে হবে কোন পক্ষ কুরআন ও সুন্নাহ অবলম্বন করছে। স্বামী কুরআন মেনে নির্দেশ করছে না মা বাবা। এর ওপর ভিত্তি করে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। তবে দু’জনই যদি নিরপেক্ষ থাকেন। দু’পক্ষই কুরআন হাদিস মানছেন। তাহলে চেষ্টা করতে হবে দুই পক্ষকেই বিষয়টি মানিয়ে নেয়ার। কিন্তু অনেক চেষ্টার পরও যদি দুই পক্ষের মতভেদ চলতে থাকে, আবার দুই পক্ষই সঠিক পথে থাকে এ অবস্থায় স্ত্রীকে স্বামীর পক্ষাবলম্বন করতে হবে। কারণ এটা স্ত্রীর নিজের পরিবার বাবা মা’র পরিবার নয়।সবচেয়ে ভালো হয়, কৌশল অবলম্বন করে বাবা মা ও স্বামী দুজনের মধ্যে আপোসে আনার চেষ্টা করা। সেটা যদি শেষপর্যন্ত অসম্ভব হয় এবং দুই পক্ষই কুরআন সুন্নাহর বিধানের মধ্যে থেকেই বিরোধ করে এবং আপনাকে বাধ্য হয়ে একটা পক্ষ অবলম্বন করতে হয় তবে আপনার স্বামীর কথাই মানতে হবে। তবে দুই পক্ষকেই সন্তুষ্ট করতে পারলে ভালো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *