দেবর ভাবীর মজার এক গুচ্ছ জোকস

আসল জোকসটা নিচে , প্রথমে একটা মজার জোকস দিয়ে নিলাম ,,,,,,নিচের ভাবীর জোকস টা কেউ মিস করবেন না …
Gf- রাস্তায় হাটার সময় কোন মেয়ের দিকে তাকাবানা। ওকে?…… Bf– হুম। Gf- ফেসবুকে কোন মেয়ের দিকে তাকাবানা এবং ছবিতে লাইক দিবা না, ওকে? Bf– হুম। Gf- খালি জিরো ডট ফেসবুক চালাবা। ওকে? Bf– হুম। Gf-টিভি কম দেখবা। মুভিও দেখবানা। আর দেখলে নায়িকাদের দিকে তাকাবানা। ওকে?…. Bf– হুম। … Gf-পেপার পড়বা কিন্তু বিনোদন পাতার দিকে যাবা না। মোবাইলে উল্টা পাল্টা ভিডিও দেখলে চোখ গাইল্লা ফেলবো। Bf– হুম। Gf- তোমার বাসা girl’s school এর সামনে না? Bf-হুম। Gf- বাসা চেঞ্জ করো। Bf–আমার বাবার বাড়ি!! Gf-বাড়ি বেচে দাও। Bf– আমার বাবা শুনলে ? Gf- তাইলে বাসা ছেড়ে মেসে থাকবা। এমন বাড়িতে যে বাড়ির মালিকেরকোন মেয়ে নাই। থাকলেও ওই মেয়ের দিকে তাকাবানা। Bf– আচ্ছা। Gf- মনে থাকবে?… Bf– এত্ত বড় লিস্ট!! সব তো মনে নাই। Gf- আবার বলবো ?? Bf– আবার! Gf- মনে না থাকলে আবার বলতে হবে। Bf– থাক থাক!! এত বড় লিস্ট দিয়ে কাজ নাই। তুমি বরং এমন কোন লিস্ট দাও যেই লিস্টে খালি আমি কোন কোন দিকে তাকাতে পারবো সেই লিস্ট থাকবে। Gf- ভালো বুদ্ধি। তুমি তোমার পায়ের বুড়া আঙ্গুলের দিকে তাকাবা খালি। এভাবে নিচের দিকে তাকিয়ে চলাচল করবা। ওকে? Bf– হুম। ওকে!! Gf- দ্যাটস মাই বয়! এই নাও ফ্লায়িং পাপ্পি!! Bf– এত কিছুর পর যে পাপ্পি দিলা ওইটাও ফ্লায়িং!! Gf- কিছু বললা ?? Bf– নাহ!! এখন আসি তাইলে?? Gf-যাও। (৪ ঘন্টা পর) Gf- বেবী তুমি কই? Bf– হাসপাতালে। Gf- কেন?… Bf– তোমার কথা শুনে পায়ের বুড়া আঙ্গুলের দিকে তাকাইয়া বাইক চালাইসিলাম। তারপর কিছু মনে নাই। উঠে দেখি হাসপাতালে আছি! Gf- তাই..?? সাবধান!! নার্সের দিকে তাকাবানা…!!

next jokes
বল্টু অনেক খন ধরে ভিতর থেকে অনেক হাসির আওয়াজ পাচ্ছিলো ,,, ভাবি এবং তার ভাই যেন ভিতরে কি খেলছে..কিন্তু সে বুঝতে পারছিলো .তাই সে রেগে গিয়ে বললো ..ভাবি খোল আমিও খেলবো ..দরজা খোল বলছি….দরজা মধ্যে সে কি লাথ্থি মারছিলো। …আর না পেরে দরজা খুলে দিলো তার ভাবি (হাসবেন না প্লিজ জোকস এখনো শেষ হয় নাই). ভাই : বাদ দাও , আর খেলব না. ভাবি : ঠিক আছে. তোমার তো শুধু একটা হাতি বেঁচে আছে আর আমার একটা ঘোড়া (হাসবেন না প্লিজ জোকস এখনো শেষ হয় নি) এমন সময় বল্টু আসল. কি আর করার। বল্টু : আমিও দাবা খেলবো। . ভাবি : না না তুমি তো পারো না শুদু চুরামকি করো ,,,আর তুমি কেঁদেই জিতে যাও,, বল্টু : তাহলে তোমরা দুইজন আমি একা. … ভাবি : তাও তুমি আমাদের সহজে হারিয়ে দেবে, পারবে না কিছু শুদু চুরামকি করবে . বল্টু : তাহলে এক কাজ করি আমি বা- হাতে খেলব আর তোমরা ডানহাতে. ভাবি (অনেকক্ষণ চিন্তা করে মনে মনে অনেক খুশি হয়ে) : ঠিক আছে. (হাসবেন না প্লিজ, জোকস আবি বাকি হে দোস্ত) তারপর যা হওয়া উচিত ছিল ঠিক তা-ই হল কোন ব্যতিক্রম হল না. ভাবি পাঁচ মিনিটের মধ্যেই দেবরের কাছে হেরে গেল. তারপর বল্টু চলে গেল. ভাই : দেখলে বল্টু বা হাতে খেলেই তোমারে হারিয়ে দিল!!! ভাবি (কিছুক্ষণ চিন্তা ভাবনা করে) : বল্টু নিশ্চয় আমারে বোকা বানিয়ে গেছে. ভাই : কীভাবে?? ভাবি : বল্টু তো বা- হাতি . ইসসস! !বল্টু কি বাটপার!! ছেলেরা আসলেই প্রতারক. লুল রে লুল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *