জ্যামিতির নতুন সুত্র আবিষ্কার করেলন বাংলাদেশের ১০ বছরের গালিব

গালিব আবিষ্কার করলেন জ্যামিতির নতুন সুত্র।
গণিত বিদ্যায় পিথাগোরাসের উপপাদ্য, ত্রিভুজের বিভিন্ন বাহুর মান নির্ণয় ইত্যাদি বিষয়ে জ্যামিতিভীতি যেন থেকেই যায় প্রত্যেকটি ছাত্রের জীবনেই। কিন্তু সেই গনিতভীতিকে জয় করে নিল নবম শ্রেণির ছাত্র আব্দুল্লাহ আল ওমর গালিব। সমবাহু ত্রিভূজের মধ্যমার দৈর্ঘ্য নির্ণয়ে নতুন সূত্র আবিষ্কার করে গালিব তাক লাগিয়ে দিয়েছে সবাইকে।আব্দুল্লাহ আল ওমর গালিব নড়াইল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র আব্দুল্লাহ আল ওমর গালিব। গালিবের বাবা মো. মনিরুল ইসলাম এলজিইডি নড়াইলের উপ-সহকারী প্রকৌশলী এবং মা জেসমিন আক্তার এলজিইডিতে কর্মরত। গালিব ভবিষ্যতে বিজ্ঞানী হতে চায়। গালিবের আবিষ্কৃত সূত্র ব্যবহার করে খুব সহজে সমবাহু ত্রিভূজের মধ্যমার দৈর্ঘ্য ও ক্ষেত্রফল নির্ণয় করা যায়। বিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের শিক্ষকরাও বিষয়টি যাচাই করে সত্যতা পেয়েছেন। গালিব জানায়, মধ্যমার মান হবে বাহু এবং GA (Galibology Constant) এর ভাগফলের সমান। অর্থাৎ মধ্যমা= বাহু ÷GA (এখানে GA এর মান 2÷√3)। এই সূত্রের মাধ্যমে সমবাহু ত্রিভূজের ক্ষেত্রফলও নির্ণয় করা যায়। ক্ষেত্রফল নির্ণয়ের সূত্রটি হবে, 1/2 X বাহু X মধ্যমা।

উদাহরণ
প্রশ্নঃ একটি সমবাহু ত্রিভূজের বাহুর দৈর্ঘ্য ৩ মিটার হলে মধ্যমার দৈর্ঘ্য কত হবে?
এমন প্রশ্নের জবাবে গালিব জানায়, মধ্যমার দৈর্ঘ্য= ৩ মিটার÷GA, অর্থাৎ ৩ মিটার÷(2÷√3)= 2.598 মিটার। সুতরাং ত্রিভূজের ক্ষেত্রফল হবে 1/2 X 2.598। গালিবের আবিষ্কৃত সূত্র যাচাই করে দেখেছেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লুৎফর রহমান, গণিত বিভাগের শিক্ষক জিল্লুর রহমান ও প্রদেশ কুমার মল্লিক। নড়াইল সরকারি উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বিজ্ঞানের শিক্ষক সবুজ কুমার সাহা বলেন, ‘গালিব আমাদের স্কুলের গর্ব। আমরা তার সূত্রটি সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে চাই।’ প্রধান শিক্ষক লুৎফর রহমান বলেন, ‘গালিবের প্রচেষ্টা সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে। এটি শিক্ষার্থীদের জন্য অনুকরণীয়। আমরা নতুন কিছু উদ্ভাবনের জন্য তাকে প্রতিনিয়ত উৎসাহ দিয়ে যাচ্ছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *